GoomZoom
Nonstop Entertainment

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে লড়াই করতে আদৌ কী সক্ষম কো-ভ্যাক্সিন? জেনে নিন তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালের রিপোর্ট

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে কার্যত বিধ্বস্ত গোটা দেশ। খুব শীঘ্রই আছড়ে পড়তে পারে তৃতীয় ঢেউ। এর আগে টিকাকরণের উপর বেশি করে জোর দিচ্ছে কেন্দ্র। ক্রমশই শক্তিশালী হচ্ছে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট। এর সঙ্গে লড়তে ভারত বায়োটেকের কো-ভ্যাক্সিন কতটা কার্যকর, তা নিয়ে আলোচনা ছিল তুঙ্গে।

কো-ভাক্সিনের কার্যকারিতা নিয়েও প্রশ্ন ওঠে কারণ এই টিকার তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শেষ হওয়ার আগেই তা জরুরী ভিত্তিতে ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হয়। তবে এবার সেই তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালের রিপোর্ট সামনে এসেছে। জানা গিয়েছে, ভয়ংকর ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সঙ্গে লড়তে কো-ভ্যাক্সিন ঠিক কতটা কার্যকর।

এই টিকার তৃতীয় অফার ট্রায়ালের পর রিপোর্টে কী কী মিলল, দেখে নেওয়া যাক এক নজরে-

১) করোনা সংক্রমণ রুখতে কো-ভ্যাক্সিন প্রায় ৭৭.৮ শতাংশ কার্যকর।

২) সার্স কোভ-২ ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সক্ষম এই টিকা। ডেল্টা ছাড়া B.1.617.1 (কাপা), B.1.1.7 (অ্যালফা), B.1.351 (বিটা), P2- B.1.1.28 (গামা) ভ্যারিয়েন্টের উপরও কার্যকর কো-ভ্যাক্সিন।

৩) টিকা উৎপাদক সংস্থা ভারত বায়োটেকের দাবী, ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে ৬৫.২ শতাংশ কার্যকর কো-ভ্যাক্সিন।

৪) অন্যান্য টিকার তুলনায় এই ভ্যাকসিনে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার হার কম বলে জানানো হয়েছে প্রস্তুতকারক সংস্থার তরফে। টিকা প্রাপকদের মধ্যে ১২ শতাংশের মধ্যে হালকা জ্বর বা মাথা ব্যথার মতো অতি সাধারণ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা গিয়েছে। তাছাড়া ০.৫ শতাংশ টিকা প্রাপকদের শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া গুরুতর ছিল।

৫) কো-ভ্যাক্সিনের ট্রায়ালকে দেশের সবচেয়ে বড় ট্রায়াল বলে দাবী করেছে ভারত বায়োটেক। ১৮-৯৮ বছর বয়সি ২৫ হাজার ৭৯৮ জনের উপর ট্রায়াল চালানো হয়েছিল

৬) দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পর দু’সপ্তাহ পরে ১৬,৯৭৩ জনের মধ্যে মাত্র ১৩০ জনের শরীরে করোনা উপসর্গ দেখা দিয়েছে।

৭) গোটা বিশ্বে জরুরি ব্যবহারে কো-ভ্যাক্সিনকে ছাড়পত্র দেওয়ার জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কাছে আবেদন করেছে ভারত বায়োটেক।

৮) ইতিমধ্যে ফিলিপিন্স, ব্রাজিল, ইরান, মেক্সিকো-সহ ১২টি দেশে কো-ভ্যাক্সিনকে জরুরি পরিস্থিতিতে ব্যবহারের ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।

Comments
Loading...
error: Content is protected !!