GoomZoom
Nonstop Entertainment

আজ জন্মাষ্টমী! সৌভাগ্য লাভ করতে কোন রাশির জাতক জাতিকারা কেমনভাবে করবেন গোপাল পুজো? জেনে নিন বিস্তারিত

আজ জন্মাষ্টমী, শ্রী কৃষ্ণের জন্মদিন। আজকের এই পবিত্র দিনেই এই পৃথিবীতে আসেন শ্রী কৃষ্ণ। আজ সারাদিন প্রায় সব বাড়িতেই শ্রী কৃষ্ণের আরাধনা হবে। সকলেই নিষ্ঠা ভরে শ্রী কৃষ্ণের পূজা করেন। নিজের ছেলের মত করেই ভালোবাসেন গোপালকে।

পৌরাণিক মতে ভাদ্র মাসের কৃষ্ণপক্ষের অষ্টমী তিথিতে যখন রোহিণী নক্ষত্র দেখা যায়, তখন জন্মাষ্টমী পালন করা হয়।দেবকী ও বাসুদেবের অষ্টম সন্তান শ্রী কৃষ্ণ আজকের দিনেই পৃথিবীতে পদার্পণ করেন।তিনি ভগবান শ্রী বিষ্ণুর অষ্টম অবতার হিসেবে পূজিত হন।

প্রায় সারা দেশেই পালিত হয় জন্মাষ্টমী। রাধা কৃষ্ণের আশির্বাদ পেতে চান সকলেই। নিজেদের সাধ্যমত পূজো করে গোপালের মনবাসনা পূর্ণ করতে চান অনেকেই। তবে আজকের এই বিশেষ দিনে সঠিক নিয়ম মেনে যদি শ্রী কৃষ্ণের পূজা করা যায়, তবেই তার সকল মনস্কামনা পূর্ণ হয়।সংসার ভরে ওঠে সুখ ও সমৃদ্ধিতে। সাথে আর্থিক লাভবান ও হয়। কি সেই নিয়ম?

একটি হলুদের গাঁট নিয়ে তা হলুদ কাপড় দিয়ে মুড়িয়ে গোপালের চরণে রেখে দিতে হবে। পুজো সম্পন্ন হলে তা টাকা রাখার স্থানে রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়। এতে সংসারে অর্থকষ্ট হয় না।

ময়ূরের পালক শ্রী কৃষ্ণের অত্যন্ত প্রিয়। তাঁর মুকুটেও শোভা পায়। তাই জন্মাষ্টমীর দিন বাড়িতে ময়ূরের পালক আনা শুভ বলে মনে করা হয়।

হলুদ রং কেশবের পছন্দ। তাই হলুদ রঙের ফুল দিয়ে পুজো করলে তিনি তুষ্ট হবেন আর আপনার মনের কামনা পূর্ণ হবে।

কৃষ্ণের চরণে পদ্মফুল অর্পণ করুন। এতে বিষ্ণুদেবের পাশাপাশি লক্ষ্মী দেবীও তুষ্ট হন। আর আপনার সংসারের সমৃদ্ধি বজায় থাকে।

শ্রী কৃষ্ণের জন্য সকলেই ভোগের সামগ্রী রান্না করেন। নারকেল নাড়ু, তালের বড়া থেকে মিষ্টি সব কিছুই থাকে। তবে নিজের রাশি মেনে ভোগ দান করলে ভগবান সন্তুষ্ট হন।

মেষ রাশির মানুষজন গোমাতাকে মিষ্টি খাওয়াবেন।

দুধ, দই ও রসগোল্লা দিতে পারেন বৃষ রাশির জাতকরা।

মিথুন রাশির জাতকরা গোপালকে নকুলদানা দিতে পারেন। আর গোমাতাকে পালং শাক কিংবা ঘাস খাওয়ালে ভাল।

নন্দের নন্দন মাখন ও মিছরি খেতে ভালবাসেন। তা দিয়েই ভোগ সাজান কর্কট রাশির মানুষজন।

সিংহ রাশির জাতকরা দিন পাঁচ রকমের ফল। তাতে বেলও রাখতে পারেন।

কন্যা রাশির মানুষজন কেশবকে কেশরযুক্ত দুধ উৎসর্গ করুন।

কালাকাঁদ ও সন্দেশ দিতে ভোগ সাজাতে পারেন তুলা রাশির মানুষজন।

বাসন্তী পোলাও, নকুলদানা, মেওয়া ননীচোরকে দিতে পারেন বৃশ্চিক রাশির জাতকরা।

বংশীধারীকে কেশর মেশানো আমন্ড পুডিং দিতে পারেন ধনু রাশির মানুষজন।

মকর রাশির জাতকরা ধনে ও পোস্ত দিয়ে চক্রপাণীর আরাধনা করতে পারেন।

সুগন্ধী ধূপ জ্বালিয়ে কুম্ভ রাশির মানুষদের কেশবের আরাধনা করা উচিত। সঙ্গে মিষ্টিও দেবেন।

মীন রাশির জাতকরা কলা, জিলিপি দিয়ে গোপালকে ভোগ দিতে পারেন।

Comments
Loading...